দ্রুত মরতে চাইলে অলস হন

couchরাজিব আহসান: দিনে তিন ঘন্টা যদি আপনি বসে কাটান তাহলেই দ্রুত মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাবেন। মানে আপনার শরীরে এমন সব রোগ বাসা বাঁধবে যা আপনাকে মৃত্যুর দুয়ারে নিয়ে যাবে। এভাবেই বছরে অন্তত কুড়ি হাজার অলস ব্রিটিশ নাগরিক মারা যায়। তাদের কোনো কাজ নেই বলে দিনভর তারা বসেই থাকে। আমেরিকান জার্নাল অব প্রিভেনটিভ মেডিসিনের এক জরিপে এ তথ্য পাওয়া গেছে। জরিপে এধরনের ব্যক্তিরা জানায় দিনে তারা অন্তত তিন ঘন্টা বসেই সময় পার করে দেন। বিশ্বে এধরনের মানুষের মৃত্যু হার তিন দশমিক আট ভাগ বলে একই জরিপে বলা হয়েছে।

২০১৪ সালে অন্তত ১৯ হাজার ৫৪ জন ব্রিটিশ নাগরিক মারা গেছে যারা দিনের অধিকাংশ সময় ঘরে বসে সময় কাটাতেন। জরিপটি বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে বসে থাকার পরিবর্তে অন্য কোনো কাজে জড়িত হয়ে পড়লে এধরনের মানুষের আয়ু বেড়ে গেছে।

জরিপে নেতৃত্ব দিয়েছেন ইউনিভার্সিটি অব সাও পাওলো স্কুল অব মেডিসিনের লিয়ান্দ্রো রেজিন্দি, যিনি বলছেন, দেখা গেছে দিনে যারা বসে থাকেন তারা যদি অন্তত আধ ঘন্টা কোনো না কোনো কাজে ব্যস্ত থাকেন তাহলেও তাদের আয়ু বেড়ে যায়। ৫৪টি দেশের অলস মানুষকে নিয়ে গবেষণায় একই ফলাফল পাওয়া গেছে। আর যদি কেউ দিনে দুই ঘন্টা কোনো না কোনো কাজ করেন তাহলে তাদের আয়ু বেড়ে যায় বসে থাকার সময়ের আয়ুর চেয়ে তিনগুণ বেশি। এভাবে কাজ করলে আয়ু বৃদ্ধির হার ঘটে অন্তত শূন্য দশমিক দুই ভাগ।

গবেষকরা আরো বলছেন, বসে না থেকে কোনো না কোনো কাজে ব্যস্ত থাকলে আয়ু বৃদ্ধির পাশাপাশি নীরোগ থাকা যায়, শরীর চনমনে থাকে। তবে বসে থাকা বা অলস থাকা মানুষের স্বভাবজাত হলেও আধুনিক সমাজে এটি খুব সাধারণ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আবার কেউ বসে থাকবে কি না এটি তার একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার এবং সামাজিক ও চারপাশের পরিবেশও এ জন্যে বেশ কিছুটা দায়ী। বিশেষ করে প্রযুক্তির ব্যবহারে কায়িক পরিশ্রম কমে যাওয়ায় মানুষ আগের চেয়ে ঘরে বসে বসে কাজ করতে পছন্দ করে যা তাকে অলস বানিয়ে দিচ্ছে। এছাড়া শহরাঞ্চলে এমন জীবপযাপন পদ্ধতিতে মানুষ অভ্যস্ত যে দূরে সহসা কখনো যাওয়া হয়ে ওঠে না। এসব বিষয়ের পাশাপাশি ঘর থেকে বের না হয়ে এমন অলস জীবন যাপনকেও কম আয়ুর জন্যে দায়ী করছেন চিকিৎসক বিজ্ঞানীরা। সান থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *