চোখে থাকবে কম্পিউটার!

eye_2833818a-400x266গুগল আবিস্কার করেছে এমন এক ক্ষুদ্র কম্পিউটার যা আপনার চোখের মনিতে স্থাপন করে দেয়া যাবে। এবং তা দেয়া হবে ইনজেক্ট করে। এর ফলে যে শুধু অন্ধত্ব দূর হবে তা নয় স্বাভাবিক দৃষ্টিশক্তির ব্যক্তিও এ ধরনের কম্পিউটার ব্যবহার করে হয়ে উঠবেন সুপার পাওয়ারের অধিকারী। গুগল কম্পিউটারটির জন্যে পেটেন্টের আবেদন করেছে। পেটেন্ট পেলে গুগল এধরনের কম্পিউটার বাজারে ছাড়াবে আর চক্ষু বিশেষজ্ঞরা তা আপনার চোখে স্থাপন করে দিতে পারবে। যা আসলে দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধি ছাড়াও ব্যবহার হবে বিবিধ কাজে। তবে কবে নাগাদ তা ক্রয় করা যাবে সে সম্পর্কে গুগল এখনো কিছু জানায়নি। আর দাম কত হতে পারে তাও অজানা।

তবে অপরাধের কাজেও এধরনের ক্ষুদ্র কম্পিউটার ব্যবহার হওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ ওই ক্ষুদ্র কম্পিউটারটিতে একটি এ্যান্টেনা থাকবে, থাকবে তথ্য রাখার মত ব্যবস্থা ও রেডিও। কেউ যদি কারো অজান্তে অন্য কারো ছবি বা তথ্য চুরি করতে চায় তাহলে অনায়াসে তা পারবে। এবং পরবর্তীতে সে এসব ছবি ও তথ্যের অপব্যবহার করতে পারে।
অনেকে মনে করছেন চলচ্চিত্রে দেখা ইক্রেডিবল হাল্ক’এর মত এধরনের ক্ষুদ্র কম্পিউটার ব্যবহার করে সুপার পারসন হয়ে উঠতে পারে মানুষ। মানুষের চোখ ক্যামেরার মত কাজ করে এটা প্রায় সবার জানা। এখন চোখে শক্তিশালী অথচ ক্ষুদ্র কম্পিউটার বসিয়ে অঙ্গটির ক্ষমতা অনেকগুণ বেড়ে গেলে তা মানবকল্যান ছাড়াও অপরাধে ব্যবহৃত হবে কি না এ আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। আলোকরশ্মি চোখে এসে প্রতিফলিত হয়ে কোনো বস্তুর প্রতিচ্ছবি ধারণ করতে পারে। ফলে দৃষ্টি শক্তি দিয়ে তা অবলোকন করা যায়। এখন ক্ষুদ্র কম্পিউটার দিয়ে তার বিবিধ ব্যবহার করা সম্ভব হবে। সূক্ষè এ্যান্টো থাকবে যা ওই কম্পিউটারের জন্যে শক্তি যোগাবে।

তবে গুগল এর আগেও চোখের শক্তি বৃদ্ধি করতে কম্পিউটারের বিবিধ ব্যবহার নিয়ে কাজ করছে। গুগল গ্লাস নামে এক বিশেষ ধরণের চশমা প্রতিষ্ঠানটি বাজারে ছেড়েছে। কিন্তু চোখে কম্পিউটার থাকলে যে কেউ অনায়াসে ভিডিও করতে পারবে সবার অগোচরে এবং তার ফলাফল কি হবে তা ভবিষ্যত হয়ত বলে দেবে। সান থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *