অদম্য এক বেথানি হ্যামিলটন

541460ইয়ামিন বিন রফিক : সাগরে সার্ফিং করার আগে তের বছর আগে ২০০৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপের টানেল বিচে মাত্র তের বছর বয়সে বেথানি হ্যামিলটনের বাম হাত খেয়ে ফেলে বিশালকায় এক হাঙ্গর। মেয়েকে উদ্ধার করতে এলে বাবাকেও ছাড়েনি ১৪ ফুট লম্বা সেই হাঙ্গর। তারও পায়ে কামড়িয়ে ক্ষত বিক্ষত করে। তারপর তাকে হাসপাতালে যেয়ে অস্ত্রোপচার করতে হয়। বেথানিকে হাঙ্গর কামড় দেওয়ার পর কাঁধ থেকে বাম হাতটি সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। সৈকতে ফিরে আসতে তার শরীরের ৬০ ভাগ রক্ত ক্ষরণ হয়। বেঁচে থাকার আশা অনেকে ছেড়ে দিলেও হাসপাতালে উদ্ধারকারী তার বাবারও পায়ে অস্ত্রোপচার করতে হয়। তিন সপ্তাহ বাদেই বেথানি সিদ্ধান্ত নেন সার্ফিং ফের করবেন। তার বাবাও তাকে উৎসাহ যোগান।

তারই ফল মিলল তের বছর পর। ফিজিতে সার্ফিং প্রতিযোগিতায় অর্থাৎ ওয়ার্ল্ড সার্ফ লিগে বেথানি শীর্ষে থাকা টেইলার রাইটকে দ্বিতীয় ধাপে পরাজিত করেন। হাওয়াইতে জন্মগ্রহণকারী বেথানি নিয়মিত সার্ফিং করেন না। তবে অনিয়মিত তার সার্ফিং এর খবর অনলাইনের কল্যাণে অনেকেরই জানা। তাকে বিভিন্ন টিভি শোতে অংশ নিতে দেখেছেন অনেকেই। ২৬ বছরের এই অদম্য নারীর মত আপনিও লেগে থাকলে যে কোনো কাজে সঠিক গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবেন। বেথানির সার্ফিং প্রতিযোগিতার ভিডিও দেখে নিতে পারেন। ডেইলি স্টার ইউকে থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *