চীনে পোশাক খুলে নগ্ন ঋণ চালু

354FC5CC00000578-3642949-image-a-1_1466000945022মৌলি নূর: চীনে ঋণ দেয়ার সময় আপনাকে নগ্ন হয়ে ছবি দিতে হবে গ্যারান্টি হিসেবে। যদি সময় মত ঋণ আপনি শোধ করতে না পারেন তাহলে অনলাইন ঋণদাতা আপনার ওই ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেবে। আর এভাবে ঋণ পাওয়া যাবে প্রচলিত পদ্ধতির চেয়ে বেশ কিছুটা বেশি। তাই চীনে মেয়েরা নগ্ন হয়ে হাতে নিজের পরিচয় পত্র ধরে ছবি তুলে তা পাঠিয়ে দিচ্ছেন অনলাইনে। মিলছে সহজেই ঋণ। পিপলস ডেইলি

চীনের আইন অনুযায়ী এভাবে নগ্ন ছবি তোলা নিষিদ্ধ হলেও ঋণ যাতে সময়মত পরিশোধ করতে বাধ্য হয় গ্রাহক সেজন্যেই এ বাড়তি ব্যবস্থা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের টার্গেট করেই এধরনের নগ্ন ঋণ চালু করার পর সাড়াও মিলছে বেশ। সপ্তাহে ঋণের সুদ গুনতে হচ্ছে ৩০ ভাগ হারে। সময়মত ঋণ পরিশোধ না করলেই ঋণগ্রহীতার নগ্ন ছবি প্রকাশ করে দেবে অনলাইন ঋণদাতা প্রতিষ্ঠান। এধরনের শর্ত দিচ্ছেন অনলাইনে ঋণদাতারা। তবে এঘটনায় নিন্দার ঝড় উঠেছে চীনে।354FB59700000578-3642949-image-m-5_1466001084252

স্বাভাবিকভাবে যে পরিমাণ ঋণ পাওয়া যায় তারচেয়ে চারপাঁচগুণ বেশি ঋণ পাওয়া যায় নগ্ন ছবি পাঠালে। একটি ছোট ব্যবসা শুরু করতে এক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী তার নগ্ন ছবি পাঠিয়ে ঋণ নেন। প্রচুর টাকা ঋণ নেওয়ার পর চারমাসের মধ্যে তিনি দেখেন অর্থের পরিমাণ দ্বিগুণ দেখাচ্ছে। বাধ্য হয়ে তিনি পরিবারের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ঋণ পরিশোধ করেন। ঋণ পরিশোধের হুমকিও আসা শুরু করেছিল। চীনের ঋণনিয়ন্ত্রণ সংস্থা এসব ব্যাপার কেন খতিয়ে দেখছে না সে প্রশ্ন উঠেছে।

কিউ কিউ ডটকমে যোগাযোগ করে লি লি নামের এক চীনা মেয়ে নিজের নগ্ন ছবি পাঠিয়ে মাত্র ৫’শ ইউয়ান ঋণ নেয়। চারমাসেই সে ঋণ বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়ায় ৫৫ হাজার ইউয়ান। হতভম্ব হয়ে পড়ে লি লি। ঋণ পরিশোধের পরও নগ্ন ছবি মুছে ফেলতে ঋণদাতা অনলাইন নিচ্ছে ১০ ভাগ অতিরিক্ত চার্জ।

অথচ চীনের আইনে নগ্ন ছবি প্রকাশ করলে দুই বছরের জেল জরিমানার বিধি রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *