ছবি তুলতে যেয়ে ওরা মারল হাঙ্গরটিকে

3569F04800000578-3647579-image-a-1_1466205416874তাহিয়া তাবাসসুম : হাঙ্গর বলে কথা। সবাই জানে হাঙ্গর হিংস্র। সাগরের এ মাছটি কিন্তু একেবারে হিংস্র প্রাণী তা কিন্তু সঠিক নয়। ডোমিনিক রিপাবলিকে এমনি এক হাঙ্গরকে পানি থেকে তুলে এনে সৈকতে পর্যটকরা ছবি তুললেন। তাদের সঙ্গে ছিল শিশু থেকে শুরু করে লাইফগার্ড পর্যন্ত। ওদিকে জলের মাছ ডাঙ্গায় তুললে কি হয় তা যেন তারা ভুলেই গিয়েছিলেন। ব্যস শেষ পর্যন্ত হাঙ্গরটি মারাই গেল।

ডোমিনিক রিপাবলিকের পান্টা কানায় হার্ড রক হোটেল এন্ড ক্যাসিনোর সৈকতে এ ঘটনা ঘটে। হোটেল কর্তৃপক্ষ অবশ্য বলছে লাইফ গার্ডরা সার্কটিকে ডাঙ্গায় তুলে ছবি তোলার সঙ্গে জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। নীল রঙ্গের ওই হাঙ্গরটিকে সাগর থেকে তারা টেনে ডাঙ্গায় তুলে আনে। ব্লু সার্ক নামে পরিচিত এসব হাঙ্গর বেশ নিরীহ স্বভাবের হয়ে থাকে। জল থেকে তাকে টেনে তোলার সময় সে কোনো আক্রমণ করেনি। সাত ব্যক্তি মিলে হাঙ্গরটিকে সৈকতে এনে শুইয়ে তার পাশে বসে ছবি তুলতে শুরু করে।

এসময় অন্যান্য পর্যটকও হাঙ্গরটিকে নিয়ে ছবি তুলতে শুরু করে। শিশুরা এসে জড়ো হয় ছবি তোলার জন্যে। এতক্ষণ জলের ওপর থাকার কারণে ধকল সইতে না পেরে হাঙ্গরটি মারা যায়। স্থানীয় অনলাইন পত্রিকা দি ডোডো এ খবর প্রকাশ করলে এ নিয়ে হৈ চৈ পড়ে যায়। হাঙ্গরটি মুক্তি পেতে ছটফট করেছে কিন্তু তাতেও সায় দেয়নি ওরা। এমনকি কেউ কেউ হাঙ্গরটির উপরে বসে পড়ে ছবি তোলে।3569F05000000578-3647579-image-a-3_1466205425050

হার্ড রক হোটেলের মুখপাত্র স্ট্যাচি সরিনো এধরনের ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত সেই সব হোটেল কর্মচারি ও লাইফগার্ডদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কারণ লাইফগার্ডদের দায়িত্ব ছিল হাঙ্গরটিকে নিরাপদে পানিতে যাওয়ার জন্যে সাহায্য করা। যা না করায় প্রাণী রক্ষা আইন ভঙ্গ হয়েছে। বিষয়টিকে আমরা গুরুত্বসহকারে নিয়েছি। জড়িতদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এবছরের শুরুতে আর্জেন্টিনায় এক সৈকতে একটি শিশু ডলফিনকে ঘিরে সবাই ছবি তুলতে ব্যস্ত হয়ে উঠলে ডিহাইড্রেশনে প্রাণীটি মারা যায়। সৈকতটিতে অনেকেই ডলফিনকে নিয়ে মহাব্যস্ত হয়ে উঠলেও প্রাণীটি মারা যাওয়ার আগেই তাকে জলে ফিরিয়ে দেয়নি। আর্জেন্টিনার সানা তেরিস্তায় এ ঘটনা ঘটে।3569F05800000578-3647579-image-a-4_1466205434297

সাধারণত নীল হাঙ্গরগুলো সাড়ে ১২ ফুট লম্বা হয়ে থাকে। তবে তাদের ওজন হয় কম। অনেকটা হালকা পাতলা গড়নের হয়ে থাকে এধরনের হাঙ্গর।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *