চটপটে এক ভাসমান প্রাসাদ

365BFA4D00000578-3694216-image-a-57_1468753730813রাজিব আহসান : কোনো ধনকুবকে খুশি করার জন্যে এ ভাসমান বিলাসবহুল ছোটখাট জাহাজটি অনন্য। হেলিপ্যাড থেকে শুরু করে অনন্ত এক সুইমিং পুল, ছোট এক বাগান, স্বচ্ছ চৌবাচ্চা, দৃষ্টি নন্দন হলরুম যার পেছনে অসীম নীলাকাশ আর সাগরের হাতছানি ব্যাকড্রপ হয়ে আছে, সমুদ্রের লোনা জল এসে সৈকতের মত আছড়ে পড়ছে জাহাজের পাটাতনে এমন নানা আয়োজন ৩৫৫ ফুট দীর্ঘ স্থান জুড়ে। আছে ডেক, দোতালায় ব্যালকনি, বেডরুম, মাথার ওপর ছাদ, আর সেই ছাদে আরেক ত্রিকোণ সুইমিং পুল।365BFA9C00000578-3694216-image-a-52_1468753721220

বিলাসবহুল ছোট এই জাহাজটির ডিজাইন করেছেন নরওয়ের হ্যারাইড ডিজাইন। জাহাজটির বৈশিষ্ট হচ্ছে প্রশস্ত ডেক যেখানে বসে আপনি সূর্য দেখবেন আর রোদ পোহাবেন। আর যদি ইচ্ছে হয় তখন ঝপাত করে জলে ছলাৎ শব্দ তুলে ঝাঁপ দিতে পারেন। চলে যেতে পারেন সাগর জলের গহীন অন্তপুরে। বেশ বড় বলতে হবে হলরুমটি। মাঝখানে গোলাকার বেদি, মাথার ওপর গোলকার এক বৃত্তের ফাঁদ থেকে সাদা আলো নেমে এসে হলরুমের প্রশস্ত মেঝেতে আছড়ে পড়ছে। ৬৬ ফুট লম্বা সুইমিংপুল রয়েছে এক পাশে। বর্ধিত এক ডেকের পাশে ডাইনিং এলাকা, অগভীর আরেক সুইমিং পুল সেখানে।

365BFAA100000578-3694216-image-a-55_1468753725438এই অত্যাশ্চার্য ধরনের ধারণা নিয়ে বিলাসবহুল জাহাজটি দেখতে অনেকটা নৌবাহিনীর জাহাজের মত। মনে হবে কোনো যুদ্ধ জাহাজ। কিন্তু অভ্যন্তরে যেন বিলাসিতার চরম এক নকশার ডিজাইন। ক্যারিবিয় কিংবা ভূমধ্য সাগরে জাহাজ চলছে কিংবা জলে স্থির হয়ে আছে আর রাতের পার্টি জমজমাট হয়ে উঠছে, কল্পনা করুন মন ভরে উঠবে আনন্দ আর স্বস্তিতে। অথৈ সাগরে আপনি একাকি অনুভব করলে ছোট এক বাগানে দেখতে পাবেন ঘাসের কার্পেট। আপনি স্থলভূমি ছেড়ে গহীন সাগরে গেলেও এক চিলতে বাগান আপনার পাশেই স্থলের মায়া এনে দেবে।365BFA0200000578-3694216-image-a-50_1468753717210

এমন জাহাজ কেউ তৈরি করে নিতে পারেন। হ্যারাইড ডিজাইনের এমনিতে বিলাসবহুল জাহাজ তৈরির ঐতিহ্য রয়েছে। রয়েছে দীর্ঘ অভিজ্ঞতা। বাহারি ডিজাইনের এক উৎকর্ষতা রয়েছে জাহাজটির সর্বত্র। একেই বলে স্ক্যান্ডেনেভিয়ান বাহাদুরি। জাহাজে হেলিপ্যাড থাকায় আপনি যানজট এড়িয়ে উড়ে এসে যেন জুড়ে বসতে পারবেন জাহাজটিতে। কাছের কোনো বিমানবন্দর থেকে হেলিপ্যাড থেকে উড্ডয়ন আর তার পর অবতরণের পর পৌঁছে গেলেন জাহাজের পাটাতনে। অলস গা এলিয়ে দিয়ে গলায় নামাতে পারেন তরল তারপর উচ্ছল জীবনের হাতছানি। বিভিন্ন আয়োজন, বাণিজ্য নিয়ে আলাপ আর কনসার্টে মেতে উঠতে পারেন।

365BFB0F00000578-3694216-image-a-43_1468753691682জাহাজে রয়েছে সৌর শক্তি চালিত চুল্লি। এইনার হ্যারাইড যিনি সাব অটোমোবাইলের ডিজাইন ডিরেক্টর ছিলেন তিনি ১৯৯৯ সালে হ্যারাইড ডিজাইন প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলেন। জাহাজের সৌর শক্তি চালিত উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন প্যানেলের দৈঘ্য ৩ হাজার বর্গফুট। লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি সৌর বিদ্যুৎ থেকে যে শক্তি পায় তাতেই অনায়াসে ধীরে ধীরে সাগরে গা ভাসিয়ে চলে জাহাজটি। তবে দূরবর্তী কোনো স্থানে দ্রুত যেতে ডিজেল বিদ্যুতের যন্ত্র রয়েছে যা জাহাজটিকে শক্তি যোগায়। প্রকৃতির সৌন্দর্য উপলব্ধি করতেই সৌর বিদ্যুতের ব্যবহার করা হয়েছে জাহাজটিতে।এধরনের একটি জাহাজ তৈরি করতে আপনাকে কত গুণতে হবে তা এখনো নির্ধারণ হয়নি কারণ জাহাজটি আদৌ তৈরি হয়নি। 365BFB4800000578-3694216-image-a-49_1468753711848

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *