স্কটল্যান্ডে ভয়ঙ্কর যৌন নির্যাতন চক্রে শিশুরা

parent-looking-at-_2760654aরিচার্ড বেলেট : ব্রিটেনের পুলিশ স্কটল্যান্ড থেকে অন্তত ৭৭ সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে যারা শিশুদের ইন্টারনেটে যৌন উত্তেজক ছবি পাঠিয়ে অবৈধ যৌন কাজে বাধ্য করত। এ জঘন্য চক্রের হাতে অন্তত ৫’শ শিশু কিশোর আটকা পড়ে অবৈধ যৌনকাজে লিপ্ত হতে বাধ্য হচ্ছে বলে পুলিশের এক মাসের তদন্তে জানা গেছে। এ চক্রটি তিরিশ মিলিয়ন যৌন উত্তেজক ছবি শিশুদের কাছে পাঠিয়েছে। পুলিশের অনুসন্ধানে স্কটল্যান্ডে শিশুদের যৌন নির্যাতনের ভয়াবহ তথ্য উদঘাটিত হয়েছে। শীর্ষ এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেছেন, কৌশলে শিশু কিশোরদের যৌনতায় বাধ্য করা জাতীয়ভাবে হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেটাই হচ্ছে। শুধু যৌন উত্তেজক ছবি নয় শিশুদের ধর্ষণের মত গুরুতর ঘটনা ঘটছে। গত ৬ জুন থেকে ১৫ জুলাই পর্যন্ত স্কটল্যান্ডে পুলিশ এ তদন্ত পরিচালনা করে। এমনকি তিন বছরের শিশুদেরকেও নিস্তার দেয়া হয়নি।1FB0EB6600000578-3714671-More_than_75_suspects_have_been_arrested-m-68_1469798374357

এধরনের ৫২৩ জন শিশু কিশোরকে যৌনতা থেকে উদ্ধার করার পর তাদের মধ্যে ১২২ জনকে শিশু রক্ষা কার্যকমের আওতায় আনা হয়েছে। তদন্তকালে অন্তত ১৩৪টি যৌন নির্যাতনের ঘটনা ধরা পড়ে। এধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকার জন্যে ৩৯০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। স্থানীয় পুলিশ ৬ সপ্তাহের এই অভিযানে স্কটল্যান্ড পুলিশ, বিশেষ তদন্ত দল যৌথভাবে এধরনের অপরাধ চক্রের বিরুদ্ধে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেয়।162666_1-300x300

এ্যাসিসটেন্ট চিফ কনস্টেবল ম্যালকম গ্রাহাম এ প্রসঙ্গে বলেন, অনলাইনের মাধ্যমে শিশুদের যৌন নির্যাতনের ঘটনা জাতীয় হুমকি হলেও শুধু ব্রিটেনে নয় সারা বিশ্বে তা ঘটছে। শিশু, কিশোর থেকে শুরু করে সকল বয়সের ছেলে মেয়েদের ব্যবহার করা হচ্ছে, তাদের কৌশলে এধরনের গর্হিত ও ভয়ানক অপরাধে যুক্ত করা হচ্ছে।

32DEB84200000578-3714671-image-m-72_1469800372587তিনি বলেন, এধরনের তদন্তের মধ্যে দিয়ে একটি বিষয় পরিস্কার যে প্রথমে ইন্টারনেটে উত্তেজনামূলক ছবি পাঠিয়ে শিশুদের প্রচ- কৌতুহলী ও আগ্রহী করে তোলা হয় এবং শেষ পর্যন্ত অনৈতিক কাজে বাধ্য করা হয়। খুবই ধীরে এমনভাবে কৌশলে শিশুদের যৌনতায় বাধ্য করা হচ্ছে যে তারা ধর্ষণের শিকার পর্যন্ত হচ্ছে।

তদন্তের সময় ৮৩টি বাড়ি তল্লাশী করা হয়। ইন্টারনেটে অন্তত ১ লাখ চ্যাট শনাক্ত করা হয়েছে যা যৌনতার আবেদনে পরিপূর্ণ ছিল। ৫৪৭টি ডিভাইস পরীক্ষার জন্যে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। পুলিশ বলছে তাদের এধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে যাতে শিশু থেকে কিশোরদের অবৈধ যৌন চক্রের হাত থেকে রক্ষা করা যায়। কারণ প্রতিটি শিশুর যৌন নির্যাতনকারীদের হাত থেকে বাঁচার অধিকার আছে। এবং পুলিশের প্রতিশ্রুতি হচ্ছে এধরনের অনৈতিক চক্রের হাত থেকে অবুঝ শিশুদের রক্ষা করা। ডেইলি মেইল থেকে

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *